মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৬, ২০২১

আপনাকে যে ফিরতেই হবে প্রিয় মাশরাফি

ভাষান্তর: | বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

স্টাফ রিপোর্টারঃ ৫৬ হাজার বর্গমাইলের এই বদ্বীপে হাতে গোনা যে কটা গর্ব করার মতো বিষয় আছে, নিঃসন্দেহে মাশরাফি বিন মুর্তজা তার মধ্যে একটি।

নেতা, মানুষ আর খেলোয়াড়—এ তিনটি শব্দ যোগ করে মাশরাফি এমন একজন ক্রিকেটার, যা এর আগে কোনো দিন ক্রিকেট বিশ্ব দেখেনি-ইংল্যান্ডের সাবেক ক্যাপ্টেন নাসের হোসাইন।

এখনো এক দিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে বাংলাদেশের বোলারদের মাঝে সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক। তার বোলিং নিয়ে ক্রিকেট কিংবদন্তি ব্রায়ান লারা একবার বলেছিলেন, ‘আমার দুর্ভাগ্য, আমি মাশরাফির সঙ্গে এক টিমে খেলতে পারিনি।’

আর স্যার ভিভ রিচার্ডস একটু উল্টো করে বলেছিলেন, ‘আমার সৌভাগ্য, আমাকে কোনো দিন মাশরাফির বল মোকাবিলা করতে হয়নি।’

প্রতিবার হাঁটুর অস্ত্রোপচারের পর মাঠে ফিরে কলার উঁচিয়ে তিনিই আমাদের শিখিয়েছেন কীভাবে বিশ্ব ক্রিকেটের মহারথীদের হারিয়ে দেওয়াটা অভ্যাসে পরিণত করে বলতে হয়, ‘দৌড়া, বাঘ আইলো!

কখনও বন্ধু, কখনও বড়ভাইয়ের মতো দীর্ঘদিন দলের ড্রেসিংরুম মাতিয়ে রেখেছেন তিনি।

অনেকের চোখে অভিভাবক মাশরাফি। আবার দলের সবচেয়ে মজার মানুষ হয়ে খেলোয়াড়দের সঙ্গে মিশেছেন মাশরাফি।

২২ গজ থেকে হয়েছেন জনপ্রতিনিধি। জাতীয় দলকে যেমন সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন, নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য হিসেবেও অসাধারণ ভূমিকা তার।

উল্লেখ্য যে, তার নির্বাচনী এলাকা নড়াইল-২ আসনে দুস্থ-অসহায়দের পাশে অর্থ সহায়তা থেকে শুরু করে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করেছেন। উল্লেখ্য করোনা ভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকেই বেশ সক্রিয় ছিলেন ম্যাশ।

বিশেষ করে নিজ নির্বাচনী এলাকায় চোখে পড়ার মতো কাজ করেছেন তিনি।

করোনার ক্রান্তি সামনে এলে অসহায়, দুঃস্থ মানুষকে সাহায্য দেড় যুগ ধরে ব্যবহার করা হাতের ব্রেসলেট নিলামে তুলেন। প্রিয় জিনিসটি নিলামে ৪২ লাখ টাকায় বিক্রি হয়। নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে জন্মস্থানের নানা প্রান্তে নিলাম থেকে পাওয়া সেই অর্থ ব্যবহার করেন।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদের মাধ্যমে অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে প্রদান করেন অর্থ।

তাছাড়া এই অর্থ দিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অধীনে থাকা ৮২ জন কোচেরও পাশে দাঁড়ান তিনি। অন্যদিকে দুঃস্থ শিশুদের পড়া-লেখা চালাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদকেও (ডাকসু) অর্থ প্রদান করেন।

এছাড়া করোনার জন্য প্লাজমা তৈরি করছে, এমন একটি সংস্থাকেও সহায়তা করেছেন তিনি। করোনা আক্রান্তের খবর পাবার পর সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড পেজে একটি পোস্ট দিয়ে দোয়া চেয়েছেন মাশরাফি।

২০.০৬.২০২০ শনিবার সন্ধ্যা ৬টা ২৪ মিনিটে দেয়া পোস্টে তিনি লিখেছেন, “আজকে আমার রেজাল্ট COVID-19 পজিটিভ এসেছে।

সবাই আমার জন্যে দোয়া করবেন যাতে খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠতে পারি। এর আগে ২০.০৬.২০২০ রোজ শনিবার দুপুরে করোনা ভাইরাস টেস্টের রিপোর্টে করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিশ্চিত করা হয়েছে বলে তার আত্মীয়স্বজনরা নিশ্চিত করেছেন।

আপনাকে যে ফিরতেই হবে প্রিয় নেতা, প্রিয় মানুষ মাশরাফি।

‘আপনি সবসময় একজন চ্যাম্পিয়ন এবং ইনশাল্লাহ আপনি কঠিন সময় কাটিয়ে উঠবেন। কোটি কোটি মানুষ আপনার জন্য দোয়া করছে। আপনাকে যে দেশের প্রয়োজন।

বার বার অপারেশন হওয়া পায়ে সিরিঞ্জ দিয়ে পানি বের করে যে বাহাদুর তার বীরত্ব দেখিয়েছে বারবার, যার বাহাদুরীর ফলে জম্ন নিয়েছে ৫৬ হাজার বর্গমাইলে শত শত বাহাদুরের তাদের জন্য হলেও ফিরতে হবে হে বীর।

শেয়ার করুন: