সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২১

প্রায় দেড় বছর পর খুললো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান: “ফুল দিয়ে শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানালেন শিক্ষকেরা”

ভাষান্তর: | বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সোহাগ মাতুব্বর, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের ভাঙ্গায় দীর্ঘদিন পরে ক্লাসে ফিরতে পেরে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা। সরকারি দিকনির্দেশনা অনুযায়ী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হয়েছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেড আকারে ক্লাস রুমে শিক্ষার্থীদের বসার ব্যবস্থা করেছেন।

এই বিষয়ে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দীর্ঘদিন পরে প্রাণ ফিরে পেয়েছে। সকল শিক্ষার্থীরা মুখে মাস্ক ব্যবহার করছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বাইরে রাখা হয়েছে হাত ধোয়ার জন্য বেসিন ও সাবান। এছাড়া ও শিক্ষার্থীদের তাপমাত্রা মাপার ব্যবস্থা রয়েছে।

এই বিষয়ে এস.এস.সি  পরীক্ষার্থী ঋতু আক্তারী বলেন, দীর্ঘদিন পরে স্কুল খুলে দেওয়ায় আমাদের পড়াশোনা গতি পাবে সেই সঙ্গে দীর্ঘদিন পরে বন্ধু বান্ধবীদের সঙ্গে সাক্ষাত হলো। আজ খুব ভালো একটি দিন গেলো।

এই বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মুন্সী আসলাম বলেন, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী  প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয় আগে থেকে প্রস্তুত রাখা হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোমলমতী শিশুরা ক্লাসে ফিরতে পেরে উচ্ছ্বসিত। সেই সঙ্গে প্রতিটি শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের তাপমাত্রা মাপা ও হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সকল শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানানোহয়েছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এক শিক্ষার্থীকে হ্যান্ড-স্যানিটাইজার দিচ্ছেন।
এই বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সৈয়দ আহমেদ জামশেদ বলেন, আজ ১২/০৯/২০২১ খ্রিঃ আব্দুর রশিদ মিয়া উচ্চ বিদ্যালয় এবং কাজী ওয়ালী উল্যাহ উচ্চ বিদ্যালয় পরিদর্শন করি। স্কুল আঙিনা, ক্লাসরুম, ওয়াশ রুম স্বাস্থ্য সম্মত পরিলক্ষিত হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা সকলেই অবহিত আছেন। স্বাস্থ্য বিধি মেনে স্ব স্ব দায়িত্ব যথাযথ ভাবে প্রতিপালন করবেন মর্মে মতবিনিময় কালে শিক্ষকগণ আস্বস্ত করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিদর্শনে জান
এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন বলেন, উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী আগে থেকে প্রস্তুত রাখা হয়েছিল। আমি নিজেই এই বিষয়ে খোঁজ খবর রাখি এবং সরজমিনে পরিদর্শন করি। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র ছাত্রীরা ফিরে আসায় যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচলের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন: